A Reliable Media

এ দেশে উগ্রবাদের উত্থান ঘটেছিল বিএনপির হাত ধরেই: ওবায়দুল কাদের

এ দেশে উগ্রবাদের উত্থান ঘটেছিল বিএনপির হাত ধরেই: ওবায়দুল কাদের

অনলাইন ডেস্ক: আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির আশকারা, প্রশ্রয় আর পৃষ্ঠপোষকতা পেয়েই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য অবমাননার মতো দুঃসাহস দেখাচ্ছে।

শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘গণতন্ত্রহীনতায় উগ্রবাদের উত্থান ঘটছে- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এই অভিযোগ ঠিক নয়। ’

তিনি বলেন, বিএনপি একদিকে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী এবং উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে পৃষ্ঠপোষকতা করে, আবার তারা গণতন্ত্রের কথা বলে? এ দেশে উগ্রবাদের উত্থান ঘটেছিল বিএনপির হাত ধরেই।

বিএনপি নেতাদের কাছে প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বাংলা ভাই, শায়খ আবদুর রহমান কাদের সৃষ্টি? সারাদেশে একযোগে বোমা হামলা কাদের আমলে করা হয়েছিল? ময়মনসিংহে একযোগে চারটি সিনেমা হলে বোমা হামলা কোন আমলে হয়েছিল?’

তিনি বলেন, বিএনপিই ক্ষমতায় টিকে থাকতে আর দেশ থেকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা মুছে দিতে ধর্মীয় উগ্রবাদের সৃষ্টি করেছিল। তারা উগ্রবাদীর যে বিষবৃক্ষ লালন পালন করেছিল, তারাই আজ ডালপালা বিস্তার করেছে। ’

‘তাদের আশকারা, প্রশ্রয়, পৃষ্ঠপোষকতা পেয়েই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী আজ বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য অবমাননার মতো দুঃসাহস দেখাতে পারে’ যোগ করেন ওবায়দুল কাদের।

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যারা আগে বিদ্রোহ করেছেন ও দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করছেন, তাদের মনোনয়ন দেওয়ার প্রশ্নই আসে না। তারা বিজয়ী হন অথবা পরাজিত হন তাদের অবশ্যই মনোনয়ন দেওয়া হবে না। এ বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যার পক্ষ থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দিতে চাই। ’

এ সময় হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘পেছন থেকে এমপি-মন্ত্রী ও জেলা কিংবা কেন্দ্রীয় কোনো নেতা যদি বিদ্রোহ প্রার্থীদের মদদ দিয়ে থাকেন, তাহলে তাদের বিরুদ্ধেও দল ডিসিপ্লিনারি অ্যাকশন নেবে। এ বিষয়টি পরিষ্কার করে বলে দিতে চাই। ’

উপ-কমিটির সদস্য ঘোষণা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা তিনটির মতো উপ-কমিটি ঘোষণা করেছি। বাকিগুলোর বিষয়ে আমি সম্পাদকদের বলবো- আপনারা আপনাদের উপ-কমিটি সদস্যদের নাম ঘোষণা করুন। অবিলম্বে আপনাদের তালিকা জমা দিন। ’

করোনা সংক্রমণ প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, দেশে অতিসম্প্রতি সংক্রমণ এবং মৃত্যু হারের ট্রেন্ড আবার ঊর্ধ্বমুখী হতে চলেছে। বিশেষজ্ঞরা আবার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা করছেন। এ বাস্তবতায় প্রতিরোধ ব্যবস্থা জোরদারের কোনো বিকল্প নেই। তাই তাই শতভাগ মাস্ক পরিধান হতে পারে ভ্যাকসিনের এই মুহূর্তের বিকল্প।

ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটি বিভিন্ন ধর্মীয় ও স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান এবং দেশের প্রতিটি বিভাগীয় সদর দপ্তরে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ধানমন্ডিতে এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক সামছুন্নাহার চাঁপা প্রমুখ।

editor

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *