A Reliable Media

কোরিয়ায় প্রথম মিনু মেমোরিয়াল অ্যাওয়ার্ড জিতলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মামুন

কোরিয়ায় প্রথম মিনু মেমোরিয়াল অ্যাওয়ার্ড জিতলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মামুন

অনলাইন ডেস্ক: অধিকার কর্মী ও চলচ্চিত্র পরিচালক শেখ আল মামুন দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রথম মিনু মেমোরিয়াল অ্যাওয়ার্ড জিতলেন।

কোরিয়া টাইমসের এক প্রতিবেদনে জানা যায়, দেশটিতে থাকা অভিবাসী শ্রমিকদের অধিকার রক্ষায় দীর্ঘ দিনের অবদানের জন্য তাকে এ স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

প্রয়াত অভিবাসী শ্রমিক ও অধিকারকর্মী মিনোদ মোক্তানের জীবন ও কর্মের স্মরণে তার সমর্থকেরা এ পুরস্কার প্রবর্তন করেছেন। মিনু ছিল তার কোরিয়ান নাম।

৪৫ বছরের মামুন ১৯৯২ সালে দক্ষিণ কোরিয়ায় পা রাখেন। প্রথমে গিয়ংগি প্রদেশের নামাংজুতে একটি আসবাব কারখানায় কাজ নেন। কিন্তু কাজের পরিবেশ না থাকা ও প্রবাসী শ্রমিকদের প্রতি ব্যাপক বৈষম্যের কারণে তিনি সরব হন।

২০০১ সাল থেকে বিভিন্ন শ্রম অধিকার কর্মকাণ্ডে জড়িত হন মামুন। ২০১৩ সালে কোরিয়ান কনফেডারেশন অব ট্রেড ইউনিয়ন (কেসিটিইউ)-এর অধীনে অভিবাসী শ্রমিক ইউনিয়নের সিনিয়র সদস্য হিসেবে নিয়োগ পান।

কোরিয়ান টাইমসকে তিনি বলেন, “এ পুরস্কার কেবল আমার জন্য নয়, আমার সহকর্মীদের জন্যও অনুপ্রেরণা হবে। আশা করি পুরস্কারটি কোরিয়ানদের মধ্যে এমনকি যারা অভিবাসী শ্রমিকদের ইস্যুর সঙ্গে খুব বেশি পরিচিত না তাদের মাঝে আরও পরিচিতি পাবে। ”

সহকর্মী ও পরিবারের প্রতি এ অর্জন উৎসর্গ করেছেন বলে জানান মামুন।

এশিয়া মিডিয়া কালচার ফ্যাক্টরি (এএমসি ফ্যাক্টরি)-র অধীনে দশের বেশি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন মামুন।

২০১৩ সালে থেকে তিনি এ সব প্রামাণ্যচিত্রের সঙ্গে যুক্ত। যেখানে অভিবাসী শ্রমিকদের কথা ওঠে এসেছে।

তিনি বলেন, চলচ্চিত্রের গল্পের মাধ্যমে কার্যকরভাবে বার্তা বিশ্ববাসীর সামনে ‍তুলে ধরা যায়। শুধু অভিবাসী শ্রমিকই নয়, মানবাধিকার নিয়ে চলচ্চিত্র তৈরির পরিকল্পনা আছে আমাদের।

শেখ আল মামুনের সাম্প্রতিক ছবি ‘অ্যাওয়েটিং’। যেখানে ওঠে এসেছে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ ও কোরিয়ার যুদ্ধে যৌন দাসত্বের শিকার হওয়া মানুষের গল্প। ২০২১ সালের জানুয়ারিতে ডাকার ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে চলচ্চিত্রটির প্রিমিয়ার হবে।

editor

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *