A Reliable Media

ঠাকুরগাঁওয়ে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকে মারপিটের অভিযোগ বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে

ঠাকুরগাঁওয়ে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকে মারপিটের অভিযোগ বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে

ঠাকুরগাঁও: রাস্তায় কাজ নিম্ন মানের হওয়ার প্রতিবাদ করায় ঠাকুরগাঁওয়ে সদর উপজেলার স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আরিফ মাহামুদ খান(৩০) কে রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে বিএনপির এক নেতার বিরুদ্ধে।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) বিকালে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে পৌর যুবদলের সভাপতি আহমুদ উল্লাহ বাবুর বিরুদ্ধে এমনি অভিযোগ করেন স্বেচ্ছাসেবকলীগের এই নেতা।

অভিযোগকারী আরিফ মাহামুদ খান ঠাকুরগাঁও শহরের ফকিরপাড়া এলাকার ইয়ার মাহামুদ খানের ছেলে। তিনি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য।

অভিযুক্ত আহমুদ উল্লাহ বাবু ঠাকুরগাঁও পৌর যুবদলের সভাপতি। তিনি শহরের ফকিরপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আরিফ মাহামুদ অভিযোগ করে বলেন,বাসার সামনে রাস্তার কাজটি নিম্ন মানে হচ্ছে এই বিষয়টি ঠিকাদার মুরাদের কর্মরত ম্যানেজারকে অবগত করা হলে তিনি উত্তেজিত হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে ম্যানেজার পৌর যুবদলের সভাপতি আহমদ উল্লাহ বাবুকে ডেকে নিয়ে আসে। এসময় বিএনপির এই নেতা আমার কোন কথা না শুনেই আমাকে গালাগালি করা শুরু করে। এ পর্যায়ে আমাকে রড দিয়ে মারপিট করে। এসময় আমার ছোট ভাই কাজল আলী তাকে বাধা দিতে গেলে তাকে মারপিট করে।

আরিফ মাহামুদ আরো বলেন,আহমদ উল্লাহ বাবুকে আমি বিষয়টি বার বার বলি যে রাস্তায় নিম্ন মানের কাজ হচ্ছে। কিন্তু সে আমার কথা না শুনে উল্টো আমাকে বলে এই সরকারের আমলে এমন কাজ হবেই। পরে আমি সেখানে কয়েকটি ছবি তুলে ফেসবুকে আপলোড করি। এটার কারনেই বিএনপির এই নেতা আমাকে সহ আমার ভাইকে মারপিট করে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

অভিযুক্ত পৌর যুবদলের সভাপতি আহমদ উল্লাহ বাবুর বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আরিফ আমাদের এলাকার ছোট ভাই। রাস্তার কাজ হচ্ছে সেটি সে বন্ধ করে দিয়েছিলো। পরে আমি সেখানে গিয়ে তার কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে সে আমাকে বলে আমি এখানে কোন কাজ হতে দিবোনা। এখানে নি¤œ মানের কাজ হচ্ছে। এরপর সে ফেসবুকে সে আমার ছবি সহ পোস্ট করে। যেটি আমার খারাপ লাগার কারনে আমি তাকে ধম দেই। সেখানে কোন প্রকার হাতাহাতি হয়নি বা আমি তাকে মারপিট করিনাই।

এদিকে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকে পিটিয়ে জখমের বিষয়ে নিন্দা জানিয়েছেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নজমুল হুদা শাহ এ্যাপোলো,সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মুজাহিদুর রাহমান শুভ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াফু তপু সহ জেলা-উপজেলা ও পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃবৃন্দরা।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নজমুল হুদা শাহ এ্যাপোলো বলেন,বর্তমান সরকারের আমলে যে উন্নয়ন হচ্ছে এই উন্নয়নের দৃশ্যটি জনগনের কাছে খারাপ করার জন্য বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রতিনিয়ত ষড়যন্ত্র করে আসছে। আজ এটি প্রামন হলো আমাদের ঠাকুরগাঁও জেলায়। কোন কারন ছাড়া আমাদের স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্যকে মারপিট করলো। সেখানে কাজের যে মান সেটি খারাপ হওয়ার কারনে আরিফ বাধা দেয়, কিন্তু বিএনপির আহমদ উল্লাহ বাবু তাকে মারপিট করলো। আমার এটা তীব্র নিন্দা জানাই।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তানভিরুল ইসলাম জানান, এখন পর্যন্ত এ ধরনের কোন ঘটনা আমরা শুনিনি। তবে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *