A Reliable Media

নবজাতককে হত্যা করে লাশ সেপটিক ট্যাংকে রেখে দিলো বাবা-মা!

নবজাতককে হত্যা করে লাশ সেপটিক ট্যাংকে রেখে দিলো বাবা-মা!

অনলাইন ডেস্ক: সাতক্ষীরা সদর উপজেলার হাওয়ালখালীতে নিখোঁজ নবজাতকের সন্ধান মিলেছে সেপটিক ট্যাংকে। বাবা সোহাগ হোসেন ও মা ফাতেমা খাতুন নিজ সন্তানকে হত্যার স্বীকারোক্তি দিয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

সাতক্ষীরা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মির্জা সালাহউদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে নবজাতক সোহানের মা ফাতেমা বারবার সবাইকে জানাতে থাকেন ‘সাতক্ষীরার হাওয়ালখালীতে বাবার বাড়িতে দিনদুপুরে মায়ের পাশে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় ১৫ দিনের নবজাতককে চুরির ঘটনা ঘটেছে।’

এরপর থেকে দিন ও রাত পুরো সময় ধরে পুলিশ ঘটনাস্থল, আশপাশের বিল, খাল, পুকুর তন্নতন্ন করে খুঁজতে থাকে।

বাবা-মাকে জিজ্ঞাসাবাদেও বারবার মিথ্যা বলতে থাকেন তারা। পরে পুলিশ বিশেষ অনুসন্ধানে নেমে সেপটিক ট্যাংকি থেকে নবজাতক সোহানকে উদ্ধার করলে মা ফাতেমা ও বাবা সোহাগ হত্যায় সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেন।

তবে কী কারণে এই হত্যাকাণ্ড তা প্রাথমিকভাবে জানা যায়নি।

শনিবার রাত একটায় এই নবজাতকের লাশ উদ্ধার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। পুলিশ নবজাতকের শরীর থেকে মল, বর্জ্য ও পোকা অপসারণ করছে। এছাড়াও পুলিশ এখনো ঘটনাস্থলে প্রয়োজনীয় তথ্যানুসন্ধানের কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

editor

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *